ইসরায়েলি হামলায় ১ মাসে ৪০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি শিশু নিহত | এক মাসেরও কম সময়ে ১0,000 ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল | পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ | গণতন্ত্রের সংজ্ঞা দেশে দেশে পরিবর্তিত হয় – শেখ হাসিনা | গাজা যুদ্ধ অঞ্চলে আশ্রয়কেন্দ্রে ইসরায়েলি হামলায় একাধিক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে | মিসেস সায়মা ওয়াজেদ ডাব্লিউএইচও এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের নেতৃত্বে মনোনীত হয়েছেন | গাজা এবং লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহৃত করেছে ইসরায়েল | বিক্ষোভে পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদলের কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে – বাংলাদেশ পুলিশ | বাংলাদেশে ট্রেনের সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত, আহত অনেক | সোশাল মিডিয়া এবং সাধারন মানূষের বোকামি | কেন গুগল ম্যাপ ফিলিস্তিন দেখায় না | ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ লাইভ: গাজা হাসপাতালে ‘গণহত্যা’ ৫০০ জনকে হত্যা করেছে ইসরাইল | গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ১,৪১৭ জন নিহতের মধ্যে ৪৪৭ শিশু এবং ২৪৮ জন নারী | হিজবুল্লাহ হামাসের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা কি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেবে? | গাজাকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর | হার্ভার্ডের শিক্ষার্থীরা ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের জন্য ‘বর্ণবাদী শাসনকে’ দোষারোপ করেছে, প্রাক্তন ছাত্রদের প্রতিক্রিয়া | জিম্বাবুয়েতে স্বর্ণ খনি ধসে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত | সেল ফোনের বিকিরণ এবং পুরুষদের শুক্রাণুর হ্রাস | আফগান ভূমিকম্পে ২০৫৩ জন নিহত হয়েছে, তালেবান বলেছে, মৃতের সংখ্যা বেড়েছে | হামাসের হামলার পর দ্বিতীয় দিনের মতো যুদ্ধের ক্ষোভ হিসেবে গাজায় যুদ্ধ ঘোষণা ও বোমাবর্ষণ করেছে ইসরাইল | পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়া থেকে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান পেল বাংলাদেশ | বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ওপর ভিসা বিধিনিষেধের পলিসি বাস্তবায়ন শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র | হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যায় ভারতের সংশ্লিষ্টতার তদন্তে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র | যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সম্প্রতি বাংলাদেশের বিমানবাহিনী প্রধান হান্নানকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছে | ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাবে ৭৭৮ জনের প্রাণহানি |

স্টকহোম সিনড্রোম

স্টকহোম সিনড্রোম, এমন একটি মানসিক অবস্থা যেখানে একজন অপরাধীর প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করা হয় এবং এই সহানুভূতি প্রকাশ করে সেই ব্যক্তি যিনি নিজেই ভুক্তভোগী। এখানে এক অবিশ্বাস্য মানসিক অবস্থার সৃষ্টি হয় যেখানে ভুক্তভোগী ব্যক্তি আবেগের বশীভূত হয়ে চিন্তা করে, অপরাধী কোন অন্যায় করে নি। এই অপরাধকে স্বাভাবিক  কোন ঘটনার মত করে দেখার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায় ওই ভুক্তভোগীর মাঝে। অপরাধীর প্রতি দুর্বলতা সত্যিকার অর্থেই অদ্ভুত এক  ধরনের মানসিক পরিস্থিতির তৈরি করে।

তাহলে এই অদ্ভুত মানসিক পরিস্থিতির নাম কেন স্টকহোম সিনড্রোম ?

এর পিছনে একটি পটভূমি আছে যা সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমের একটি ব্যাংক ডাকাতিকে কেন্দ্র করে।

১৯৭৩ সালের ২৩ই অগাস্টে স্টকহোমের সুপরিচিত তৎকালীন kreditbanken যা বর্তমান নরডিয়া ব্যাংকে একজন অস্ত্রধারী দুর্বৃত্ত হামলা করে। ব্যাংকের ভোল্টে ওই অস্ত্রধারী দুর্বৃত্ত ৬ দিন যাবত আটকে রাখে চারজন কর্মচারীকে  যার মধ্যে তিনজন ছিলো মহিলা এবং একজন পুরুষ। এই ৬ দিনে এক ধরনের অস্বাভাবিক সম্পর্কের সৃষ্টি হয় তাদের মাঝে। প্রধানমন্ত্রীর সাথে টেলিফোন কলে কথা বলার সময় একজন মহিলা বন্দী স্বীকার করেন যে তিনি অস্ত্রধারী দুর্বৃত্তকে বিশ্বাস করেন, তবে তিনি শঙ্কিত তার জীবন নিয়ে। সবচাইতে অবাক করা বিষয় হচ্ছে, যখন বন্দিরা মুক্তি পেল তারা পুলিশের কাছে সাক্ষী দিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করে। এমনকি দুর্বৃত্তকে অপরাধী হিসেবে মানতে নারাজ ছিলো তারা। শুধু তাই নয় দুর্বৃত্তের জন্য অর্থ সংগ্রহ করলো যাতে সে আর্থিক সাহায্য পায়।

তবে ইতিহাসে এই ধরনের ঘটনা আরও কয়েকবার ঘটেছে যা স্টকহোম সিনড্রোমের কারনেই হয় বলে বলা হয়ে থাকে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Leave a Reply