ইসরায়েলি হামলায় ১ মাসে ৪০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি শিশু নিহত | এক মাসেরও কম সময়ে ১0,000 ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল | পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ | গণতন্ত্রের সংজ্ঞা দেশে দেশে পরিবর্তিত হয় – শেখ হাসিনা | গাজা যুদ্ধ অঞ্চলে আশ্রয়কেন্দ্রে ইসরায়েলি হামলায় একাধিক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে | মিসেস সায়মা ওয়াজেদ ডাব্লিউএইচও এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের নেতৃত্বে মনোনীত হয়েছেন | গাজা এবং লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহৃত করেছে ইসরায়েল | বিক্ষোভে পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদলের কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে – বাংলাদেশ পুলিশ | বাংলাদেশে ট্রেনের সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত, আহত অনেক | সোশাল মিডিয়া এবং সাধারন মানূষের বোকামি | কেন গুগল ম্যাপ ফিলিস্তিন দেখায় না | ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ লাইভ: গাজা হাসপাতালে ‘গণহত্যা’ ৫০০ জনকে হত্যা করেছে ইসরাইল | গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ১,৪১৭ জন নিহতের মধ্যে ৪৪৭ শিশু এবং ২৪৮ জন নারী | হিজবুল্লাহ হামাসের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা কি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেবে? | গাজাকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর | হার্ভার্ডের শিক্ষার্থীরা ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের জন্য ‘বর্ণবাদী শাসনকে’ দোষারোপ করেছে, প্রাক্তন ছাত্রদের প্রতিক্রিয়া | জিম্বাবুয়েতে স্বর্ণ খনি ধসে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত | সেল ফোনের বিকিরণ এবং পুরুষদের শুক্রাণুর হ্রাস | আফগান ভূমিকম্পে ২০৫৩ জন নিহত হয়েছে, তালেবান বলেছে, মৃতের সংখ্যা বেড়েছে | হামাসের হামলার পর দ্বিতীয় দিনের মতো যুদ্ধের ক্ষোভ হিসেবে গাজায় যুদ্ধ ঘোষণা ও বোমাবর্ষণ করেছে ইসরাইল | পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়া থেকে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান পেল বাংলাদেশ | বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ওপর ভিসা বিধিনিষেধের পলিসি বাস্তবায়ন শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র | হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যায় ভারতের সংশ্লিষ্টতার তদন্তে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র | যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সম্প্রতি বাংলাদেশের বিমানবাহিনী প্রধান হান্নানকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছে | ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাবে ৭৭৮ জনের প্রাণহানি |

বাংলার গ্রামীণ জগতের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা

লোকালয়ের ধারণা (indigenous knowledge) , কিংবা ঐতিহ্যগত ধারণা এমন এক ধরনের দেশীও জ্ঞান যা অঞ্চল বেঁধে বিভিন্ন উপায়ে চর্চা করা হয়ে থাকে। অর্থাৎ বিশেষ কোন অঞ্চলে কিছু কিছু ঐতিহ্যগত ধারণা বংশ পরাম্পরায় চলতে থাকে যুগ যুগ ধরে। আচ্ছা হয়ত বুঝাতে গিয়ে গুলিয়ে ফেলছি। উদাহরণে আসা যাক! যেমন ধরুন খনার বচন, পল্লী গান, ছড়া, শ্লোক ইত্যাদি! তবে আজকে গল্প হবে, কেন এই ঐতিহ্যগত ধারণা গুলি টিকে আছে, বা এই কথাগুলোর ভূমিকা কি জীব বৈচিত্র্য রক্ষার্থে কিংবা যেই পরিবেশে জীবের বসবাস তার মনুষ্য সৃষ্ট দূষণ রোধে!

ancient 2179091 960 720

মাটির পাতিল

মাটির পাতিল আমরা সবাই মোটামুটি দেখেছি। এই মাটির তৈরি থালাবাসন গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য যদিও তা এখন ইতিহাস হয়ে গেছে আধুনিক ভোগের চর্চার খাতিরে। তবে এই চর্চা ভূমিকা রাখে জীব বৈচিত্র্য রক্ষায়। মাটির থালাবাসন তৈরি করতে যান্ত্রিক দূষণ নেই বললেই চলে। শুধু কুমারের খাটুনি আর মাটির উপর ঝর তুফান। এই বার আসি ব্যাবহার করার পরবর্তী অবস্থায়। মাটির তৈরি এই জিনিস তেমন কোন ক্ষতির কারণই নয় যেমনটা ঘটে প্লাস্টিক জাতিও পণ্য সামগ্রীর ক্ষেত্রে।

water hyacinth 1547721 960 720

কচুরিপানা

কেমিক্যাল ব্যাবহার পরিবেশের জোন ক্ষতিকর। তবে পাঁই পরিস্কার করাও তো জরুরী। এমন কোন উপায় থাকলে তো ভালোই হতো যাতে পরিবেশেরও কিছু না হয় আবার পানিও পরিষ্কার থাকে। হ্যাঁ, এটির সমাধান হচ্ছে কচুরিপানা। কচুরিপানা দিয়ে পানি পরিষ্কার আরেকটি গ্রাম্য চর্চা যেখানে রাসায়নিক দ্রব্যাদির ব্যাবহার ছাড়াই পানি পরিষ্কার আর ঠাণ্ডা রাখা হয়। মাছের খাদ্য, জীব বৈচিত্র্য রক্ষায় ভূমিকা আছে এই চর্চার।

খনার বচন, শ্লোক, ছড়া

“ব্যাঙ ডাকে ঘন ঘন
শীঘ্র বর্ষা হবে যেন”

frog 5319326 960 720

শুনতে ভালো লাগলেও, এই ভাবেই বর্ষা আসার আগাম বার্তা পেত গ্রামীণ জীবনের মানুষগুলি। যদিও একটা বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা আছে এর পিছনে।অন্যান্য সরীসৃপদের মতো ব্যাঙের চামড়া জলরোধী না। তাই গরমকালে তারা নিষ্ক্রিয় থাকে। এমনকি কিছু কিছু ব্যাঙ কয়েক ফিট মাটির নিচে নিজেদের আত্মগোপন করে রাখে যাতে ঠাণ্ডা পরিবেশ পাওয়া যায়। আর বিশুষ্কীকরণ এর ভয় এড়িয়ে, বেরিয়ে পরে বর্ষার সময়। আর তখনই গ্রাম্য সাধারণ মানুষগুলি মনে করে আকাশ থেকে ব্যাঙ আসছে আর বৃষ্টি হবে। বর্ষা খুব কাছে! এভাবেই এই ধারণা নিয়ে কৃষিকাজ চলে। রোপণ করা হয় ধান।

radishes 4266807 960 720

“ষোল চাষে মূলা,
তার অর্ধেক তুলা;
তার অর্ধেক ধান,
বিনা চাষে পান।”

এই খনার বচনটি চাষাবাদ পদ্ধতি নিয়ে আলোকপাত করেছে। কোন চাষি যদি জমিতে ১৬ দিন চাষ করে তাহলে সেই জমিতে মূলার ভালো ফলন পাওয়া যেতে পারে। আর তুলার ভালো ফলন পেতে চাইলে দরকার ৮ দিন, আর চারদিনেই যথেষ্ট ধানের ভালো ফলন। আর পান চাষের জন্য দরকার নেই কোন চাষাবাদের।

inflorescences 64407 960 720

“কলা রুয়ে না কেটো পাত,

তাতেই কাপড়, তাতেই ভাত”

কলাগাছের ফলন হওয়ার পর কেউ যদি গোরা রেখে গাছটির উপরের অংশ কেটে ফেলে তাহলে নিচ থেকে আবার গাছের জন্ম নেয়। সেই গ্রামীণ জনগণকে খনা পরামর্শ দিয়েছিলেন যাতে তারা গোরা না কাটে। কলার ফলন দিয়ে তাদের জীবিকা চলে যাবে।

যদি বর্ষে আগুনে,

রাজা যায় মাগনে।

অগ্রাহয়ন মাসে বৃষ্টিপাতে অর্থনৈতিক দুর্দশা নেমে আসার সম্ভাবনার প্রতি দৃষ্টি দিয়েছিলেন খনা। অগ্রাহয়ন মাসে বৃষ্টিপাতে অর্থনৈতিক দুর্দশা নেমে আসার সম্ভাবনার প্রতি দৃষ্টি দিয়েছিলেন খনা। এই মাসে বৃষ্টিপাত হলে আবাদি ফসলে ক্ষতির মুখ দেখার সম্ভাবনা আছে।

“কোল পাতলা ডাগর গুছি

লক্ষ্মী বলেন ঐখানে আছি”

এই খনার বচনটিতে কীভাবে চাষাবাদ করতে হয় তার নমুনা পাওয়া যায়। ধানের জালা ফাঁকা করে রোপণ করার কথা বলা হয়েছে। এতে ভালো ফলনের সম্ভাবনা থাকে।

sunset 3875895 960 720

সরিষা বনে কলাই মুগ

বুনে বেড়াও চাপড়ে বুক”

খনার কৃষকদের পরামর্শক ছিলেন বুঝাই যাচ্ছে। সরিষা ও মুগ বা সরিষা ও কলাই এক সাথে চাষ করার পরামর্শ দিয়েছিলো খনা। এতে চাষাবাদে ভালো ফলন আসে।

আউশের ভুঁঁই বেলে, পাটের ভুঁই আঁটালে

আউশ ধান বেলে মাটিতে ভালো হয় আর অন্যদিকে পাট ভাল হয় এঁটেল মাটিতে।

এই রকম আরও অনেক খনার বচন আছে যা কৃষকদের মুখে ছড়া আকারে থাকতো এবং কৃষিকাজে কিংবা আবহাওয়ার গতি বিশ্লেষণেও কাজ করতো এই খনার বচনগুলি।

বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রাতে যেমন করে সভ্যতা এগিয়ে গিয়েছে ঠিক তেমন করেই গ্রামীণ ঐতিহ্য, ধ্যান ধারণাগুলো হারাতে বসেছে। যদিও বাস্তবতার নিরিখে বললে এটিই হওয়া স্বাভাবিক ছিলো। বিজ্ঞানের আবিষ্কারগুলো আস্তে আস্তে দূরে ঠেলে দেয়ার পিছনে কারন সহজবোধ্যতা। ভারী যন্ত্রপাতি আর আধুনিক প্রযুক্তির কলাকৌশলে খনার বচন কিংবা প্রচলিত ধারণাগুলির টিকে থাকা সত্যিকার অর্থেই দুষ্কর যদিও এই ধারনাগুলি মানুষের অনুকূলের পরিবেশ রক্ষার্থে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে। তবে আমাদের দেশের সাহিত্যিক, গবেষকদের সাহায্য দরকার। তারা এই ধারনাগুলি যাতে বইয়ের পাতায় থাকে সেই বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে পারে। কারন অতীতের ঐতিহ্য স্মরণ করে সামনের এগিয়ে যাওয়াটাই হয়তো শ্রেয়।

Leave a Reply