গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় অন্তত ৬৩ জন নিহত হয়েছেন | ইসরায়েলি হামলায় ১ মাসে ৪০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি শিশু নিহত | এক মাসেরও কম সময়ে ১0,000 ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল | পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ | গণতন্ত্রের সংজ্ঞা দেশে দেশে পরিবর্তিত হয় – শেখ হাসিনা | গাজা যুদ্ধ অঞ্চলে আশ্রয়কেন্দ্রে ইসরায়েলি হামলায় একাধিক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে | মিসেস সায়মা ওয়াজেদ ডাব্লিউএইচও এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের নেতৃত্বে মনোনীত হয়েছেন | গাজা এবং লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহৃত করেছে ইসরায়েল | বিক্ষোভে পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদলের কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে – বাংলাদেশ পুলিশ | বাংলাদেশে ট্রেনের সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত, আহত অনেক | সোশাল মিডিয়া এবং সাধারন মানূষের বোকামি | কেন গুগল ম্যাপ ফিলিস্তিন দেখায় না | ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ লাইভ: গাজা হাসপাতালে ‘গণহত্যা’ ৫০০ জনকে হত্যা করেছে ইসরাইল | গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ১,৪১৭ জন নিহতের মধ্যে ৪৪৭ শিশু এবং ২৪৮ জন নারী | হিজবুল্লাহ হামাসের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা কি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেবে? | গাজাকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর | হার্ভার্ডের শিক্ষার্থীরা ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের জন্য ‘বর্ণবাদী শাসনকে’ দোষারোপ করেছে, প্রাক্তন ছাত্রদের প্রতিক্রিয়া | জিম্বাবুয়েতে স্বর্ণ খনি ধসে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত | সেল ফোনের বিকিরণ এবং পুরুষদের শুক্রাণুর হ্রাস | আফগান ভূমিকম্পে ২০৫৩ জন নিহত হয়েছে, তালেবান বলেছে, মৃতের সংখ্যা বেড়েছে | হামাসের হামলার পর দ্বিতীয় দিনের মতো যুদ্ধের ক্ষোভ হিসেবে গাজায় যুদ্ধ ঘোষণা ও বোমাবর্ষণ করেছে ইসরাইল | পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়া থেকে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান পেল বাংলাদেশ | বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ওপর ভিসা বিধিনিষেধের পলিসি বাস্তবায়ন শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র | হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যায় ভারতের সংশ্লিষ্টতার তদন্তে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র | যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সম্প্রতি বাংলাদেশের বিমানবাহিনী প্রধান হান্নানকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছে |

সময়মত নামায পড়ার গুরুত্ব

আমরা সবাই জানি ইসলামের ৫টি স্তম্ভ রয়েছে এবং সালাহ হলো ইসলামের দ্বিতীয় স্তম্ভ। যখন কেউ নামাজ পড়ে, তখন সে মুসলিম হিসেবে স্বীকৃত হয়। একজন প্রকৃত মুসলমান স্রষ্টা আল্লাহ (সুবহানাহু ওয়া তায়ালা) ছাড়া কারো উপাসনা করে না। সালাহর অনেক সুবিধা রয়েছে, তার মধ্যে একটি হল এটি আল্লাহর (SWT) সাথে যোগাযোগের উপায় এবং প্রত্যেক মুসলমানের এটি কঠোরভাবে অনুসরণ করা উচিত।

যেমন আল্লাহ (সুবহানাহু ওয়া তায়ালা) পবিত্র কোরআনে বলেছেন, “নামাজ ও নামাযকে কঠোরভাবে হেফাজত করো – [মাঝখানে] এবং আল্লাহর জন্য আনুগত্যের সাথে দাঁড়াও।” (সূরা বাকারা 2:238)

সময়মত নামায পড়ার গুরুত্ব

সময়মত দিনে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা প্রত্যেক মুসলমানের জন্য ফরজ। সময়মত সালাত আদায়ের গুরুত্ব এই হাদিস দ্বারা বোঝা যায়:

আবদুল্লাহ নবী মুহাম্মাদ (সাঃ)-কে জিজ্ঞেস করলেন, “আল্লাহর কাছে কোন কাজটি সবচেয়ে প্রিয়?” তিনি উত্তর দিলেন, “নামাজ তাদের নির্ধারিত সময়ে পড়া।” (সহীহ আল-বুখারি ৫২৭)।

যেমন ইবনে উমর থেকে বর্ণিত, আল্লাহর রসূল বলেছেন: “নামাজের সময়ের শুরু আল্লাহর কাছে খুশি এবং এর শেষ সময়টি আল্লাহ ক্ষমা করে দেন।” (জামি আত-তিরমিযী 172), তাই আপনি কি আপনার সর্বশক্তিমানকে খুশি করার জন্য যথাসময়ে এবং তাড়াতাড়ি নামাজ শুরু করতে চান না, যা ছাড়া আপনি জান্নাতে স্থান পেতে পারবেন না।

এটি কুরআনের এই আয়াত দ্বারাও বোঝা যায়:

“নিশ্চয়ই (দিন ও রাতের) নির্দিষ্ট সময়ে নামায মুমিনদের উপর ফরজ করা হয়েছে।” (কুরআন 4:103)।

“নিশ্চয়ই, সালাত (নিজেকে) লজ্জাজনক ও অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখে…” (কুরআন ২৯:৪৫)।

একজন মানুষকে দুর্বল সৃষ্টি করা হয়েছে এবং আল্লাহর কাছে না চেয়ে খুব সহজেই ধার্মিকতা থেকে বিচ্যুত হতে পারে। তাহলে আপনি কি মন্দ প্রভাব থেকে নিজেকে বিরত রাখতে আল্লাহর সাহায্য চান না? আপনি যত আগে নামায পড়বেন এবং সময়মত নামায পড়লে আল্লাহ আপনাকে হেদায়েত দেবেন এবং পাপ থেকে বিরত রাখবেন।

আমরা একজন মুসলিম হিসেবে আমাদের আখিরাতের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে এবং সর্বদা একটি ভাল কাজ করতে হবে। আমরা কখনই জানি না যে আমাদের আত্মা আমাদের দেহ ছেড়ে যাবে এবং মৃত্যুর পরে জীবন চিরন্তন। তাই আমাদের উচিত সময়মত সালাত আদায় করা, এবং আমাদের সর্বোত্তম প্রচেষ্টা হওয়া উচিত ভোরবেলা নামায পড়ার দিকে।

আমরা সবাই জানি যে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালাকে স্মরণ না করে আমরা শান্তি ও চির তৃপ্তি পেতে পারি না এবং আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালাকে স্মরণ করার সর্বোত্তম উপায় হল সালাত।

একজন মানুষ তার ব্যস্ত জীবনযাপনে অবহেলা করে এবং সালাত ছেড়ে দেয় বা দেরি করে। কিন্তু আমাদের অবশ্যই সচেতন থাকতে হবে যে, সালাত আমাদের জন্য ফরজ, আমাদের তার নির্ধারিত সময়ে করার চেষ্টা করা উচিত। আমরা যদি সময়মতো সালাত আদায় না করি, তাহলে আমরা শুধু পাপেই লিপ্ত হব না, আমরা নৈতিক অধঃপতনের সর্বনিম্ন গভীরতায় পতিত হব। যারা সালাত আদায় করে না তাদের বিরুদ্ধে আল্লাহ কঠোর ব্যবস্থা নেন, যা কুরআনের এই আয়াত দ্বারা বোঝা যায়।

“তাদের স্থলাভিষিক্ত হয়েছে এমন এক সম্প্রদায় যারা নামাযকে অবহেলা করেছিল এবং তাদের লালসা অনুসরণ করেছিল। তারা এখন তাদের শাস্তির সাথে মিলিত হবে…” (কুরআন 19:59)