গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় অন্তত ৬৩ জন নিহত হয়েছেন | ইসরায়েলি হামলায় ১ মাসে ৪০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি শিশু নিহত | এক মাসেরও কম সময়ে ১0,000 ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল | পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ | গণতন্ত্রের সংজ্ঞা দেশে দেশে পরিবর্তিত হয় – শেখ হাসিনা | গাজা যুদ্ধ অঞ্চলে আশ্রয়কেন্দ্রে ইসরায়েলি হামলায় একাধিক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে | মিসেস সায়মা ওয়াজেদ ডাব্লিউএইচও এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের নেতৃত্বে মনোনীত হয়েছেন | গাজা এবং লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহৃত করেছে ইসরায়েল | বিক্ষোভে পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদলের কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে – বাংলাদেশ পুলিশ | বাংলাদেশে ট্রেনের সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত, আহত অনেক | সোশাল মিডিয়া এবং সাধারন মানূষের বোকামি | কেন গুগল ম্যাপ ফিলিস্তিন দেখায় না | ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ লাইভ: গাজা হাসপাতালে ‘গণহত্যা’ ৫০০ জনকে হত্যা করেছে ইসরাইল | গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ১,৪১৭ জন নিহতের মধ্যে ৪৪৭ শিশু এবং ২৪৮ জন নারী | হিজবুল্লাহ হামাসের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা কি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেবে? | গাজাকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর | হার্ভার্ডের শিক্ষার্থীরা ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের জন্য ‘বর্ণবাদী শাসনকে’ দোষারোপ করেছে, প্রাক্তন ছাত্রদের প্রতিক্রিয়া | জিম্বাবুয়েতে স্বর্ণ খনি ধসে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত | সেল ফোনের বিকিরণ এবং পুরুষদের শুক্রাণুর হ্রাস | আফগান ভূমিকম্পে ২০৫৩ জন নিহত হয়েছে, তালেবান বলেছে, মৃতের সংখ্যা বেড়েছে | হামাসের হামলার পর দ্বিতীয় দিনের মতো যুদ্ধের ক্ষোভ হিসেবে গাজায় যুদ্ধ ঘোষণা ও বোমাবর্ষণ করেছে ইসরাইল | পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়া থেকে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান পেল বাংলাদেশ | বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ওপর ভিসা বিধিনিষেধের পলিসি বাস্তবায়ন শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র | হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যায় ভারতের সংশ্লিষ্টতার তদন্তে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র | যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সম্প্রতি বাংলাদেশের বিমানবাহিনী প্রধান হান্নানকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছে |

কেন ভারতীয় উপমহাদেশের মানুষদের সবচাইতে বেশি বর্ণবাদী বলা হয়?

সবচাইতে বর্ণবাদী কিনা তা বলতে পারবোনা তবে বর্ণবাদ নিয়ে দ্য হিন্দুতে ২০১৭ সালে প্রকাশিত একটি কলামের এক অংশের অনুবাদ দিলাম –

স্যামুয়েল জ্যাক ( ভারতে আফ্রিকান শিক্ষার্থীদের সমিতিের সভাপতি )

ভারতে বেশ কিছু মহল এবং ভারতীয়দের মধ্যে বর্ণবাদ দেখা যায়। ভিসার জন্য এক্সটেনশন চাইলে, যেভাবে আচরণ করা হয়, দেশে আবাসন পেতে অন্যদেশের মানূষেরা যে ধরণের সমস্যার মুখোমুখি হয় এবং বাইরের মানূষদের সন্দেহের দৃষ্টিতে দেখা এবং সাধারণ চিকিৎসার ক্ষেত্রে যেভাবে আচরণ করা হয় তার মধ্যে এটি স্পষ্ট। কুসংস্কার এবং স্টেরিওটাইপসগুলি সমস্তই স্পষ্ট। যখন আমরা আবাসনের সন্ধান করি, বেশিরভাগ বাড়িওয়ালা কোনও ব্যাখ্যা না দিয়ে জোরালো ভাবে ‘না’ করে দেয়। আমরা সামান্যই পছন্দ রেখেছি এবং আমরা যা পাই তাতেই সন্তুস্ট থাকতে প্রস্তুত। আমরা এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি যেখানে কোনও জরুরী পরিস্থিতিতে আমরা আমাদের প্রতিবেশীদের সাথে যোগাযোগ করতেও পারি না। আমাদের উপর এত বর্ণবাদ নিয়ে কীভাবে একে অপরের সাথে কথা বলব? কীভাবে আমরা কুসংস্কারগুলির মোকাবেলা শুরু করব?

বর্ণবাদ ব্যবস্থা

আমার মতো বহিরাগতের কাছে, যখন আমি এই নির্মমভাবে বৈষম্যমূলক আচরণ দেখতে পাই, তখন আমি দেখি যে এই বর্ণবাদ প্রচলিত বর্ণ ব্যবস্থার সাথে জড়িত যার বিভিন্ন শ্রেণি রয়েছে । কৃষ্ণাঙ্গ, দলিত এবং অস্পৃশ্যরা এই বর্ণবাদের সিস্টেমের সাথে সংযুক্ত যা বৈষম্যমূলক এবং নিম্ব বর্ণের মানূষদের উপর বর্তিত হয়। ভারতীয় বাচ্চারা সরকারী জায়গায় ধূমপান করে। তবুও যখন আমরা ধূমপান করি তখন ধরেই নেয়া হয় আমরা সর্বদা গাঁজা পান করি, যখন এমন অনেক ভারতীয় আছেন যারা একই ধূমপান করেন। ভারতীয়রা যখন একই রকম আচরণ করে তখন আফ্রিকানরা উচ্চশব্দে গান বাজালে পুলিশে অভিযোগ করে তাদের মারধর করা হয়। আমি বলছি না যে কালো ব্যক্তিরা গাজা খায়না না বা মাদক সেবন করে না তবে অন্যের ক্ষেত্রেও কি এটি সত্য নয়? সুতরাং, কেন আমাদেরকেই আলাদা ভাবে টারগেট করা হয় এখানকার লোকেরা রাস্তায় আমাদের দেখলে কেন আক্রমণাত্মক হয়? উত্তর-পূর্বের শিক্ষার্থীরাও আমাদের মতো একই সমস্যার মুখোমুখি হয়।

পাঞ্জাবের ড্রাগের সমস্যা কি আমাদের কারণে? রাজ্যটি মাদকের সংকট অনেক যুবককে প্রভাবিত করে। গোয়ায় মাদকের সমস্যাটি মূলত ইউরোপীয় এবং রাশিয়ানদের কারণে, যারা স্থানীয় নেতাদের সাথে হাত মিলিয়ে নির্বিচারে এগুলো সরবরাহ করে। কিন্তু ভারত কি তাদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণ করবে? তারা এনজিওগুলিকে কিছু অনুদান দেয় এবং কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস করে না।

গ্রেটার নয়েডায় দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন দুর্ভাগ্যক্রমে ড্রাগ ওভারডোজের কারণে মারা গেছেন। তিনি আসক্ত ছিলেন। ভারতীয় স্কুল শিশুরা কীভাবে ধূমপান করছে তা দেখলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। দুর্ভাগ্যক্রমে, আফ্রিকা বেশিরভাগ ভারতীয়দের বাইনারি হয়ে যায়। ধারণাটি হ’ল আমরা পিছিয়ে পড়া মহাদেশ থেকে এসেছি, যা কেবল সত্য নয়। কিছু আফ্রিকার দেশগুলির চেয়ে ভারতের চেয়ে উন্নত মানব বিকাশের সূচক রয়েছে এবং তাদের একটি শক্তিশালী গণতন্ত্র রয়েছে।

ভুল রঙ?

আমরা এখানে অবতরণের সময় থেকেই আমাদের চামড়ার রঙ ভারতীয়দের সমস্ত কুসংস্কার প্রদর্শন করার জন্য একটি অজুহাত হয়ে ওঠে। আমাদের ভিসার একটি বর্ধিতকরণ যা সাত দিনের বেশি লাগেনা তা কমপক্ষে তিন মাস সময় নেয়। পুলিশ যাচাইকরণ চাঁদাবাজির অজুহাতে পরিণত হয়। পুলিশ সদস্যরা অদ্ভুত সময়ে ফোন করতে থাকে।

আমরা গভীরভাবে হতাশ এবং আহত হয়েছি যে ভারত সরকার আমাদের বিরুদ্ধে আক্রমণের নিন্দা করেনি। সরকারকে অবশ্যই এটি ভুল বলা উচিত এবং এটি উপযুক্ত পদ্ধতিতে এটি মোকাবেলা করবে। সরকারকে স্বীকার করতে হবে যে প্রথমে কুসংস্কার শেকড় এখানে অত্যন্ত গভীর। সমস্যাটি স্বীকার করার পরেই আপনি এটি সমাধান করতে পারবেন।

কিন্তু ভারত সরকার অস্বীকার করে আসছে দেখা যাচ্ছে। কিছু ভারতীয়ের বৈরিতার কারণে ভারতে পড়াশোনা করতে আসা আফ্রিকান শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমতে পারে।

স্যামুয়েল জ্যাক

ভারত উপমহাদেশে বর্ণবাদ – অনুভব ব্লগ


এখানে একজন এসে বললেন সুন্নিরা নাকি আহমদি আর শিয়াদের উপর বর্ণবাদী হত্যালীলা চালায় এটাই নাকি এই উপমহাদেশে বেশি হয়।

এখন রেফারেন্স ছাড়া যে কেউ যা খুশি বলতে পারেন, কিন্তু, এই কমেন্টগুলোর একটা তাৎপর্য রয়েছে। এক এক ধর্ম, গোত্র এবং জাতীয়তা থেকে মন্তব্যগুলো আসলে তার নিজ নিজ গোত্রের ধ্যান ধারনা প্রকাশ করে, তাদেরকে কি শিখানো হয়, কোন আদর্শে বড় করা হয়, কাদেরকে শত্রু আর কাদের মিত্র হিসেবে বোঝানো হয় এসব বোঝা যায়। এখানে মনে রাখতে হবে, দুনিয়ার নিকৃষ্টতম জেনোসাইডগুলোর সপক্ষেও কিন্তু যুক্তি আছে তাদের কাছে যারা এগুলো ঘটিয়েছে।

এবং সব চেয়ে বেশি ঘটেছে এটা প্রমান করতে গেলে নিয়মিত হারে ঘটেছে এরকম কিছু একটা প্রমান দিতে হবে। এবং একই সাথে নির্ভরযোগ্য পরিসংখ্যানে সেটা সব চেয়ে বেশি দেখানো হয়েছে এমন রেফারেন্স দেখাতে হবে।

যিনি এর আগে মন্তব্য করেছেন, তার কথার বিপরীতে আমি আন্তর্জাতিক সংস্থা গুলোর কয়েকটা রেফারেন্স দিলাম এখানে –

হিন্দু চরমপন্থিদের আক্রমণে ৪০ জনেরও বেশি নিহত –

Inside Delhi: beaten, lynched and burnt alive – guardian news.

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জন্য মুসলিমদের দায়ী করে তাদের উপর হামলা করা হচ্ছে –
(ঘাসে হামাগুড়ি খাচ্ছেন আর নিজের জীবন ভিক্ষা চাচ্ছেন এক তরুন মুসলিম। তার গা কাপছে, হাত পা রক্তে মাখামাখি। আক্রমন কারিরা তাকে পিটিয়ে গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন। তাদের অভিজোগ ছিল সে করোণাভাইরাস ছড়াচ্ছে।)
Blamed For Coronavirus Outbreak, Muslims In India Come Under Attack – npr

সংখায়লঘুদের টারগেট করে হত্যা করা হচ্ছে – এন পি আর

https://www.npr.org/2019/08/21/751541321/this-is-it-im-going-to-die-indias-minorities-are-targeted-in-lynchings

ভারতীয় বংশদ্ভুত তরুন গ্রেফতার, যে সিঙ্গাপুরে দুটো মসজিদ হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল – দ্য হিন্দু

https://www.thehindu.com/news/international/indian-origin-youth-in-singapore-detained-for-planning-to-attack-muslims-at-two-mosques/article33676292.ece

হিন্দু মব রাস্তায় রাস্তায় পথচারী থামিয়ে তাদের আইডি দেখছে, কেউ তা দেখাতে অস্বীকার করলে তাদের খতনা করা কিনা তা দেখাতে বাধ্য করা হচ্ছে। ForeignPolicy,2020 March.

https://foreignpolicy.com/2020/03/02/india-muslims-delhi-riots-danger/

হিন্দু নারীর সাথে চলার জন্য মুসলিম পুরুষকে ছুড়িকাঘাত – হিন্দুস্তান টাইমস

https://www.hindustantimes.com/india-news/muslim-man-travelling-with-hindu-woman-stabbed-cops-101617388864050.html


আসলে এই লোক এরকম মন্তব্য না করলে এগুলো দেখাই হতোনা। ভারতের অবস্থা আসলে যা ভেবেছিলাম তার থেকে অনেক মারাত্মক। যত দেখছি ততই হতভম্ভ হচ্ছি। এসব জিনিস কখনোই জানতে পারতাম না শুধু আজ নেট সার্চ না দিলে ।