গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় অন্তত ৬৩ জন নিহত হয়েছেন | ইসরায়েলি হামলায় ১ মাসে ৪০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি শিশু নিহত | এক মাসেরও কম সময়ে ১0,000 ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল | পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ | গণতন্ত্রের সংজ্ঞা দেশে দেশে পরিবর্তিত হয় – শেখ হাসিনা | গাজা যুদ্ধ অঞ্চলে আশ্রয়কেন্দ্রে ইসরায়েলি হামলায় একাধিক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে | মিসেস সায়মা ওয়াজেদ ডাব্লিউএইচও এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের নেতৃত্বে মনোনীত হয়েছেন | গাজা এবং লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহৃত করেছে ইসরায়েল | বিক্ষোভে পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদলের কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে – বাংলাদেশ পুলিশ | বাংলাদেশে ট্রেনের সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত, আহত অনেক | সোশাল মিডিয়া এবং সাধারন মানূষের বোকামি | কেন গুগল ম্যাপ ফিলিস্তিন দেখায় না | ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ লাইভ: গাজা হাসপাতালে ‘গণহত্যা’ ৫০০ জনকে হত্যা করেছে ইসরাইল | গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ১,৪১৭ জন নিহতের মধ্যে ৪৪৭ শিশু এবং ২৪৮ জন নারী | হিজবুল্লাহ হামাসের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা কি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেবে? | গাজাকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর | হার্ভার্ডের শিক্ষার্থীরা ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের জন্য ‘বর্ণবাদী শাসনকে’ দোষারোপ করেছে, প্রাক্তন ছাত্রদের প্রতিক্রিয়া | জিম্বাবুয়েতে স্বর্ণ খনি ধসে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত | সেল ফোনের বিকিরণ এবং পুরুষদের শুক্রাণুর হ্রাস | আফগান ভূমিকম্পে ২০৫৩ জন নিহত হয়েছে, তালেবান বলেছে, মৃতের সংখ্যা বেড়েছে | হামাসের হামলার পর দ্বিতীয় দিনের মতো যুদ্ধের ক্ষোভ হিসেবে গাজায় যুদ্ধ ঘোষণা ও বোমাবর্ষণ করেছে ইসরাইল | পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়া থেকে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান পেল বাংলাদেশ | বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ওপর ভিসা বিধিনিষেধের পলিসি বাস্তবায়ন শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র | হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যায় ভারতের সংশ্লিষ্টতার তদন্তে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র | যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সম্প্রতি বাংলাদেশের বিমানবাহিনী প্রধান হান্নানকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছে |

জাম্বিয়ার চাঁদ ভ্রমণ

জাম্বিয়ার চাঁদ ভ্রমণ

জাগতিক সংসারে আমরা খুবই ক্ষুদ্র। অদেখা রয়ে গেছে অনেক কিছুই। তবে আফসোস করবার কিছুই নেই কারন কূলকিনারাহীন সময়ের খাতায় মানব সভ্যতার বিচরণ খুব বেশি দিনের নয়। মানুষ চাঁদে পাড়ি জমিয়েছিলো যদিও রয়েছে সত্য মিথ্যার কাঠগড়া। তবে যাই হোক আমাদের টার্গেট এখন মঙ্গল গ্রহ। আর এই মঙ্গল গ্রহের নাম নিলেই চলে আসে মার্কিন সংস্থা নাসা, স্পেস এক্স। যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া সমানে সমান পাল্লা দিচ্ছে মহাকাশ গবেষণায়। তবে এর আগে আরেকটি দেশও চাঁদ আর মঙ্গল গ্রহে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলো যার নাম শুনলে হতবাক হওয়া ছাড়া উপায় নেই। হ্যাঁ, দেশটির নাম জাম্বিয়া।

আফ্রিকার দেশ জাম্বিয়া ১৯৬৪ সালের ৩০ অক্টোবর স্বাধীনতা অর্জন করে। আর ঠিক ওই সময়ই চলছে মঙ্গল গ্রহে যাওয়ার প্রস্তুতি। আর এই স্পেস প্রোগ্রামের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন এডওয়ার্ড মাকুকা এনকলোসো ( Edward Makuka Nkoloso)।

তিনি দাবি করেন, জাম্বিয়ান নভোচারীরা প্রথমে যাবে চাঁদে, তারপর মঙ্গলগ্রহে। দুই পরাশক্তি রাশিয়া আর যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে জাম্বিয়া বিজয়ী হবে এই স্পেস দৌড়ে।
প্রস্তুত করছিলেন তার এলুমুনিয়াম আর কপারের রকেট যা বহন করবে ১০ জন জাম্বিয়ান পুরুষ , ১৭ বছরের একটি মেয়ে আর সাথে তার একটি বিড়াল।

১৯৬৫ সালের ভিতেরই চাঁদে পৌঁছাবে তার এই রকেট।
উচ্চাবিলাশি এই এডওয়ার্ড কি সক্ষমতা রাখতেন চাঁদ কিংবা মঙ্গলে যাওয়ার! প্রশ্নের উত্তর দিতে গেলে প্রথমেই তার শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে আরেকটি প্রশ্ন তুলা যেতে পারে। যদিও যে কেউই নিজ জ্ঞান দ্বারা আলোকিত হতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আমাদের আলোচনার এডওয়ার্ড ছিলেন সাধারন স্কুল শিক্ষক। যদিও তিনি দাবি করেন তার হেডকোয়ার্টার ছিলো লুসাকাতে যেখানে তিনি প্রশিক্ষণ দিচ্ছিলেন কীভাবে উদ্ভট উপায়ে চাঁদে যাওয়া যায়।
অবশ্যই এই পাগলামি বাস্তবতায় পরিণত হয়নি।
ব্যর্থতার কারন হিসেবে দায়ী করা হয় ওই প্রোগ্রামে থাকা অবস্থায় গর্ভবতী হওয়া এক নভোচারীকে আর সাথে ছিলো না পাওয়া ৭০০ মিলিয়ন ডলারের এক বাজেট যা এডওয়ার্ড দাবী করেন ইউনেস্কোর কাছে।

Leave a Reply