গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় অন্তত ৬৩ জন নিহত হয়েছেন | ইসরায়েলি হামলায় ১ মাসে ৪০০০ এর বেশি ফিলিস্তিনি শিশু নিহত | এক মাসেরও কম সময়ে ১0,000 ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল | পুলিশের সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষ | গণতন্ত্রের সংজ্ঞা দেশে দেশে পরিবর্তিত হয় – শেখ হাসিনা | গাজা যুদ্ধ অঞ্চলে আশ্রয়কেন্দ্রে ইসরায়েলি হামলায় একাধিক বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে | মিসেস সায়মা ওয়াজেদ ডাব্লিউএইচও এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের নেতৃত্বে মনোনীত হয়েছেন | গাজা এবং লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহৃত করেছে ইসরায়েল | বিক্ষোভে পুলিশ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদলের কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে – বাংলাদেশ পুলিশ | বাংলাদেশে ট্রেনের সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত, আহত অনেক | সোশাল মিডিয়া এবং সাধারন মানূষের বোকামি | কেন গুগল ম্যাপ ফিলিস্তিন দেখায় না | ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ লাইভ: গাজা হাসপাতালে ‘গণহত্যা’ ৫০০ জনকে হত্যা করেছে ইসরাইল | গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ১,৪১৭ জন নিহতের মধ্যে ৪৪৭ শিশু এবং ২৪৮ জন নারী | হিজবুল্লাহ হামাসের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। তারা কি ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেবে? | গাজাকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর | হার্ভার্ডের শিক্ষার্থীরা ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের জন্য ‘বর্ণবাদী শাসনকে’ দোষারোপ করেছে, প্রাক্তন ছাত্রদের প্রতিক্রিয়া | জিম্বাবুয়েতে স্বর্ণ খনি ধসে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত | সেল ফোনের বিকিরণ এবং পুরুষদের শুক্রাণুর হ্রাস | আফগান ভূমিকম্পে ২০৫৩ জন নিহত হয়েছে, তালেবান বলেছে, মৃতের সংখ্যা বেড়েছে | হামাসের হামলার পর দ্বিতীয় দিনের মতো যুদ্ধের ক্ষোভ হিসেবে গাজায় যুদ্ধ ঘোষণা ও বোমাবর্ষণ করেছে ইসরাইল | পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রাশিয়া থেকে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান পেল বাংলাদেশ | বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাদের ওপর ভিসা বিধিনিষেধের পলিসি বাস্তবায়ন শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র | হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যায় ভারতের সংশ্লিষ্টতার তদন্তে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছে কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র | যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সম্প্রতি বাংলাদেশের বিমানবাহিনী প্রধান হান্নানকে ভিসা দিতে অস্বীকার করেছে |

ডেঙ্গুতে ১০ বছরের নিচে ৩১ শিশুর মৃত্যু

বাংলাদেশে ডেঙ্গু জ্বরে মৃতের সংখ্যা ৩১ এ পৌঁছেছে, যার অধিকাংশই 10 বছরের কম বয়সী শিশু। সরকার বেশ কয়েকটি জেলায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে, এবং স্বাস্থ্য আধিকারিকরা প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন।

ডেঙ্গু একটি মশাবাহিত রোগ যা জ্বর, মাথাব্যথা, পেশী ব্যথা এবং ফুসকুড়ি হতে পারে। গুরুতর ক্ষেত্রে, এটি মৃত্যুর কারণ হতে পারে। গ্রীষ্মমন্ডলীয় এবং উপক্রান্তীয় জলবায়ুতে এই রোগটি সবচেয়ে বেশি দেখা যায় এবং বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম আক্রান্ত দেশ।

বাংলাদেশে বর্তমান প্রাদুর্ভাব সাম্প্রতিক বছরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ। সরকার জলবায়ু পরিবর্তন, দুর্বল স্যানিটেশন এবং রোগ সম্পর্কে সচেতনতার অভাব সহ বিভিন্ন কারণের সংমিশ্রণকে প্রাদুর্ভাবের জন্য দায়ী করেছে।

স্বাস্থ্য আধিকারিকরা ডেঙ্গু থেকে নিজেদের রক্ষা করার জন্য লোকেদের পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করছেন, যেমন:

  • বাইরে গেলে লম্বা হাতা ও প্যান্ট পরা
  • পোকামাকড় প্রতিরোধক ব্যবহার করে
  • তাদের বাড়ির আশেপাশে মশার প্রজনন ক্ষেত্র নির্মূল করা
  • ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে টিকা নেওয়া
  • কীটনাশক স্প্রে করতে এবং রোগ সম্পর্কে মানুষকে শিক্ষিত করার জন্য সরকার হাজার হাজার স্বাস্থ্যকর্মীকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় মোতায়েন করেছে।

এই প্রাদুর্ভাব বাংলাদেশে ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে। অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত, এবং শ্রমিকদের ক্ষতির কারণে ব্যবসাগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সরকার প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে, তবে এটি একটি কঠিন কাজ।

১0 বছরের কম বয়সী ৩১ শিশুর মৃত্যু একটি দুঃখজনক ঘটনা। এটি ডেঙ্গু বিশেষ করে ছোট বাচ্চাদের জন্য মারাত্মক হুমকির কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। সরকার এবং স্বাস্থ্য আধিকারিকদের অবশ্যই প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণ করতে এবং আরও মৃত্যু রোধ করতে তাদের যথাসাধ্য করতে হবে।

উপরে উল্লিখিত পদক্ষেপগুলি ছাড়াও, সরকার ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করার জন্য নিম্নলিখিত ব্যবস্থাগুলিও বিবেচনা করতে পারে:

ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় পরিবারকে বিনামূল্যে মশারি সরবরাহ করা
ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও চিকিৎসা সংক্রান্ত শিক্ষা উপকরণ বিতরণ
ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার ক্ষমতাসম্পন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকের সংখ্যা বাড়ানো
স্যানিটেশন এবং ড্রেনেজ উন্নত করতে স্থানীয় সম্প্রদায়ের সাথে কাজ করা
বাংলাদেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব একটি গুরুতর জনস্বাস্থ্য সংকট। প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে এবং আরও মৃত্যু রোধ করতে সরকার এবং স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের জরুরি পদক্ষেপ নিতে হবে।