যে কারনে আমেরিকা, ইউরোপ এবং কানাডায় সরিষার তেল খাবার জন্য বিক্রয় নিষিদ্ধ

সরিষার তেল

সরিষার গাছের বীজ থেকে উৎপাদিত সরিষার তেল ভারতীয় রান্নায় একটি সাধারণ উপাদান। এটি তীব্র গন্ধ, কটু সাদ এবং উচ্চমাত্রার স্মোকিং পয়েন্টের জন্য খ্যাত। ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে এই তেল শাকসবজি রান্নার জন্য কিংবা ভাজার জন্য ব্যবহ্রত হয়।

সরিষার তেল সরিষার বীজ থেকে বাষ্পের পাতনে প্রক্রিয়াজাত করে এক ধরণের তেল তৈরি করা হয় এবং শুধুমাত্র এভাবে তৈরি করা সরিষার তেল স্বাদ বর্ধনের জন্য ব্যবহার নিরাপদ এবং অনুমোদিত।

কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে সরিষার প্রয়োজনীয় তেল শক্তিশালী অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল বৈশিষ্ট্যের অধিকারী এবং কিছু ধরণের ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াগুলির বৃদ্ধি আটকাতে সহায়তা করে।

একটি টেস্ট-টিউব সমীক্ষায় দেখা গেছে, সাদা সরিষার তেল ব্যবহারে বেশ কয়েকটি ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি হ্রাস পেয়েছিল, যার মধ্যে ইসেরিচিয়া কোলি, স্টাফিলোকক্কাস অরিয়াস এবং ব্যাসিলাস সেরিয়াস ছিল।

তাই সরিষার তেল খাবার উপকারিতা তো থাকবেই। খাঁটি সরিষার তেল আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা এবং ইউরোপে উদ্ভিজ্জ তেল বা খাবার তেল হিসেবে বিক্রি করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে এটি প্রায়শই শরীরের বিভিন্ন স্থানে প্রয়োগ করা হয় এবং ম্যাসেজের তেল, ত্বকের সিরাম এবং চুলের চিকিৎসায় ব্যবহ্রত হয়।

শুধুমাত্র বাহ্যিক ব্যবহারের জন্য এটি পাওয়া যায়। এর কারন এতে এরুসিস এসিড নামের একটি যৌগ রয়েছে যা এক ধরনের ফ্যাটি এসিড এবং এটি হ্রদপিন্ডের মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে।

সরিষার তেল সাস্থের জন্য মারাত্মক হুমকিস্বরূপ কারণ এতে উচ্চ মাত্রায় এরুসিস অ্যাসিড পাওয়া যায়। এই মনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড বেশ কয়েকটি তেলে উপস্থিত রয়েছে। অল্প মাত্রায়, ইউরিকিক এসিড নিরাপদ তবে উচ্চমাত্রায় এটি সাস্থের জন্য বিপজ্জনক হতে পারে।

প্রাণীদের উপর করা গবেষণা জানা যায় যে দীর্ঘকাল ধরে ইউরিকিক অ্যাসিড গ্রহণে তা হৃদযন্ত্রের একধরনের রোগ তৈরি করতে পারে যাকে বলা হয় মায়োকার্ডিয়াল লিপিডোসিস।

মানুষ একই মাত্রার প্রভাব অনুভব করে কিনা তা স্পষ্ট নাহলেও তবে উচ্চ মাত্রায় ইউরিকিক অ্যাসিড শিশুদের জন্য মারত্মক ঝুঁকিপূর্ণ।

স্টিম ডীস্টিলেশন প্রসেসে প্রস্তুত করা সরিষার তেল এফ ডি এ এ খাবার জন্য নিরাপদ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

বাংলাদেশে কোন মিলেই এই প্রসেসে এটি তৈরি করা হয়না। বেশিরভাগ মানূষ জানেইনা যে উন্নত বিশ্বে খাটি সরিষার তেল নিষিদ্ধ বা কেন নিষিদ্ধ। এই তেল নিয়মিত খেলে হ্রদপিন্ডের রোগ হতে পারে, স্ট্রোকের ঝুকি অত্যন্ত বেড়ে যায়। এই তেলের অনেক উপকারিতা থাকা সত্তেও খাবার হিসেবে ব্যবহার না করাই উত্তম।

উল্লেখ্য যে শুধুমাত্র তেলে এই এসিডের পরিমান নিরাপদসীমার উপরে থাকে, সরিষা বীজ বা সরিষারগুড়ো ব্যবহারে কোন সমস্যা নেই।

 

তথ্য উৎস : 

The Real Reason Mustard Oil Is Banned For Cooking Purposes In The U.S.

Mustard oil: Benefits and side effects

In 2016, the FDA issued a warning that mustard oil is not safe to use in cooking because of its high erucic acid content. This means that the FDA do not permit its use as a cooking oil in the United States – Mustard oil – Wikipedia

Mustard oil is not allowed to be imported or sold in the U.S. for use in cooking, except for those products with exceptionally low erucic acid content.

Leave a Reply